Computer Tips

কম্পিউটার ভাইরাস কি? লক্ষণ ও প্রতিকারের উপায়

কম্পিউটার  ভাইরাস কম্পিউটারের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকর। ভাইরাস শব্দটির সাথে আমরা সবাই পরিচিত। আমাদের শরীরের মধ্যে যদি ভাইরাস প্রবেশ করে তাহলে আমাদের শরীরে অনেক ক্ষতি করে। তাই ভাইরাস সম্পর্কে আমাদের সবার সচেতন এবং এর ব্যাপারে ভালমতে জ্ঞান থাকা জরুরি। আমাদের শরীরে যেমন ভাইরাস প্রবেশ করতে পারে তেমনি কম্পিউটারেও ভাইরাস প্রবেশ করতে পারে। তাই ভাইরাসকে হালকা ভাবে নেওয়া একদমই ঠিক হবে না। আজকে আমরা জানবো ভাইরাস আসলে কি আর কিভাবে বুঝবো ভাইরাস আমাদের কম্পিউটারে প্রবেশ করেছে আর এই ভাইরাস মোকাবেলা করার জন্য কি কি পদক্ষেপ গ্রহণ করা উচিত।

১। কম্পিউটার ভাইরাস কি

কম্পিউটার ভাইরাস হল এমন একটি প্রোগ্রাম যেটি কম্পিউটার ব্যবহারের সময় নানাভাবে বাধা সৃষ্টি এবং এর ক্ষতি করে থাকে।ভাইরাস শব্দটির পূর্ণরূপ হল (Vital Information Resources)। ভাইরাস কম্পিউটারের গুরুত্বপূর্ণ ডেটা নষ্ট করে ফেলে এবং সিস্টেম সফট্ওয়ারে ক্ষতিগ্রস্ত করে। ভাইরাস যেরকম একজনের শরীর থেকে অন্যজনের শরীরে ছড়ায় তেমনি কম্পিউটার ভাইরাস এক কম্পিউটার থেকে অন্য কম্পিউটারে ছড়ায়। কয়েকটি ক্ষতিকর কম্পিউটার ভাইরাসের নাম হল।(১)morris worm (2)nimda (3)iloveyou  আরো অনেক ধরনের কম্পিউটার ভাইরাস রয়েছে।

২। কিভাবে কম্পিউটারে ভাইরাস প্রবেশ করে

কম্পিউটার ভাইরাস প্রবেশ করে আমাদের অসচেতন এর কারণে। তাই আমাদেরকে সাবধানে থাকতে হবে। যাতে কম্পিউটারে ভাইরাস প্রবেশ করতে না পারে। যেগুলোর মাধ্যমে ভাইরাস প্রবেশ করে তা হল

১। ইন্টারনেটঃ আমরা যখন আমাদের কম্পিউটার দিয়ে ইন্টারনেট ব্যবহার করি তখন বিভিন্ন ওয়েবসাইট থেকে আমাদের কম্পিউটারে ভাইরাস গুলো প্রবেশ করে। আবার আমরা কোন ফাইল ডাউনলোড করি সেই ফাইলের সাথে ভাইরাস প্রবেশ করার সম্ভাবনা থাকে। আর ইন্টারনেট থেকে সবথেকে বেশি ভাইরাস কম্পিউটারে প্রবেশ করে তাই আমাদেরকে ইন্টারনেট ব্যবহার করার সময় সচেতন থাকতেে হব।

২। পেনড্রাইভঃ আমরা আমাদের কম্পিউটারে ফাইল ট্রান্সফার করার জন্য পেনড্রাইভ ব্যবহার করি। পেনড্রাইভের মাধ্যমে যখন ফাইলগুলো এক কম্পিউটার থেকে অন্য কম্পিউটারে ট্রান্সফার করি তখন আমাদের কম্পিউটারে ভাইরাস ঢুকার সম্ভাবনা থাকে।

৩। ইউএসবিঃ ইউএসবির মাধ্যমে মোবাইল বা মেমোরি কার্ড থেকে কম্পিউটারে ফাইল ট্রান্সফার করা হয়। ইউএসবির মাধ্যমে ফাইল ট্রান্সফারের সময় আমাদের কম্পিউটারে ভাইরাস ঢুকতে পারে।

৩। ভাইরাস আক্রান্তের লক্ষন

কম্পিউটার ভাইরাস আক্রান্ত হয় তখন কিছু লক্ষণ প্রকাশ পায়। যে লক্ষণগুলো দেখলে আমরা বুঝতে পারবো কম্পিউটারে ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। আমরা যখন কম্পিউটারে কোন কাজ করি তখন যদি অটোমেটিক কম্পিউটার অফ হয়ে যায় বা রিস্টার্ট হয় তাহলে বুঝবো কম্পিউটারে ভাইরাস আক্রান্ত হয়েছে। আবার কম্পিউটারে আমরা অনেক গুরুত্বপূর্ণ ফাইল সংরক্ষণ করে রাখি সে ফাইলগুলো যদি নষ্ট হয়ে যায় বা অটোমেটিক ডিলিট হয়ে যায়। তারপর উইন্ডোজ প্রোগ্রাম ফাইল গুলো ব্যবহার করার সময় নানা রকম সমস্যা হয়।

কম্পিউটার মারাত্মকভাবে স্লো হয়ে যায়। তারপর কোন সফটওয়্যার মাধ্যমে কাজ করার সময় বারবার ধ্যান করা তারপর সফটওয়্যার থেকে অটোমেটিক বের হয়ে যাওয়া এগুলো সমস্যা দেখা দিলে আমাদের বুঝে নিতে হবে কম্পিউটার ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। আবার কিছু ভাইরাস আছে যেগুলো আক্রান্ত হলে কম্পিউটারে নানারকম অ্যাডাল্ট এড দেখায়। তারপর কম্পিউটার অন অফ হতে অনেক সময় লাগে। এগুলো লক্ষণ যদি আমাদের কম্পিউটারে দেখতে পাই তাহলে বুঝে নিতে হবে কম্পিউটার ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে।

৪। ভাইরাস থেকে রক্ষা পাওয়ার উপায়

কম্পিউটার ভাইরাস থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য আমাদের কিছু টিপস মেনে চলতে হবে। আমরা যদি আগে থেকেই সচেতন থাকি তাহলে কিন্তু ভাইরাস সহজেই আমাদের কম্পিউটারে আক্রমণ করতে পারবেনা।

১।সব সময় উইন্ডোজ আপডেট দিতে হবে। উইন্ডোজ আপডেট না দিলে এর সিকিউরিটি দুর্বল হয়ে যায় তাই সবসময় উইন্ডোজ আপডেট রাখুন।

২। অবিশ্বস্ত সাইটে প্রবেশ বা ফাইল ডাউনলোড করা থেকে বিরত থাকুন।

৩। কম্পিউটার একটি এন্টিভাইরাস রাখা খুব প্রয়োজন। চেষ্টা করুন একটি ভালো মানের পেইড এন্টিভাইরাস ব্যবহার করার। যদি সেটি সম্ভব না হয় তাহলে ফ্রি কিছু এন্টিভাইরাস আছে যেগুলো ব্যবহার করলে অনেক ভাল সার্ভিস পাওয়া যাবে। আর কম্পিউটারে এন্টিভাইরাস থাকলে ভাইরাস প্রবেশ করার সময় খুবই কম থাকে।

৪। যে কারো মেমরি কার্ড বা পেনড্রাইভ কম্পিউটারে প্রবেশ করাবেন না। অনেকজনের মেমোরি কার্ড বা পেনড্রাইভ নষ্ট হয়ে যায় সেটি কম্পিউটার মাধ্যমে ঠিক করে চেষ্টা করে সেই পেন্ড্রাইভ ও মেমোরি কার্ড গুলোতে ভাইরাস থাকার সম্ভবনা অনেক বেশি। তাই মেমোরি কার্ড ও পেনড্রাইভ ব্যবহার করার সময় সচেতন থাকুন।

কম্পিউটার ভাইরাস থেকে রক্ষা করার জন্য সব থেকে বেশি ইউজারকে সচেতন থাকতে হবে।

Follow topics bangla facebook page

আরো পড়ুনঃ

স্মৃতিশক্তি বৃদ্ধি করার উপায়। 2021

মন ভালো করার উপায়।2021

ওয়েব হোস্টিং কি? ওয়েব হোস্টিং সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নিন

 

Topicsbangla

জানা ও অজানা বিষয় গুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরা আমাদের মূল লক্ষ।আমাদের সাথেই থাকুন আশা করি উপকৃত হবেন।☺☺

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button